সাপের দংশনে চিহ্নের উপর নির্ভর না করে দ্রুত চিকিৎসা নেওয়া প্রয়োজন

ছবিঃ সংগ্রহীত

ইমান উদ্দীন ইমুঃ সর্প দংশনের চিহ্নের উপর নির্ভর করবেন না সাপ বিষধর নাকি অবিষধর এইক্ষেত্রে চিকিৎসা নিতে বিলম্ব করা যাবে না।অবহেলা করলেই বড় ধরনের বিপদ হতে পাড়ে।

বেশির ভাগ সময় এটা বলা কঠিন যে এটা বিষধর নাকি অবিষধর সাপের কামড়ের চিহ্ন। তাই যথাসম্ভব সময় নষ্ট না করে অতিদ্রুত হাসপাতালের ডাক্তার শরণাপন্ন হওয়ার দিকে মনোযোগ দিতে হবে।সর্প চিকিৎসায় নিজেকে ডা.এর পর্যবেক্ষণে রাখতে হবে উপসর্গ দেখা দেয়ার পূর্বেই।

বেশির ভাগ ক্ষেত্রে দেখা যায়

চন্দ্রবোড়া ও গোখরা প্রজাতি হাতে কিংবা পায়ে দংশন করে।

ক্রেইট প্রজাতি শরীরের যে কোন স্থানে দংশন করে।

সামুদ্রিক সাপ হাতে( সামনের বাহুতে)।

সবুজ বোড়া সাপ মাথা ও মুখমন্ডলে।

বিশেষ করে সর্প দংশনের সময় অাপনার এবং সাপের সংস্পর্শে অাসার মধ্যকার দূরত্ব, অবস্থান ও দেহের নড়াচড়া( মুভমেন্ট)এর উপর নির্ভর করে।

অনেক সময় বিষধর সাপ ভালোভাবে বিষদাঁত বসাতে পারে না।কিংবা কামড়ের সময় দাঁত বসালেও অামরা হাত-পা টেনে নিয়ে অাসি দ্রুত ও ঝাড়া দিয়ে থাকি তখন অাঁচর এর মতো ও চিহ্ন হয় যা দেখতে অবিষধর সাপের মতোই দেখতে মনে হতে পারে। অাবার অনেক সময় একটি বাইট মার্ক দেখা যায় অন্যটি অস্পষ্ট অনেক সময় অাবার দুটিই দেখা যায়।অনেক অবিষধর সাপ ও এমন ভাবে চিহ্ন রাখে যে দেখতে বিষধর সাপের মত মনে হয় যখন কয়েকবার কামড় না বসিয়ে খুব ভালোভাবে একবার ই সম্মুখ দাঁত বসিয়ে থাকে।অবিষধর সাপের সবগুলো দাঁত ই সমান থাকে (Aglyphous) তাই বেশির ভাগই অনেকগুলো দাঁতের কামড়ের চিহ্ন দেখা যায়।

সবুজ বোড়া ও চন্দ্রবোড়া ভাইপার প্রজাতি সাপ গুলোর বিষদাঁত বিষধর সাপদের মধ্যে সবচেয়ে বড় বাঁকানো মুখের উপরের অংশে ভাজ হয়ে থাকে (Solenoglyphous) এদের অসহিষ্ণু বিষদাঁতের জন্য কামড়ে চিহ্ন বেশ স্পষ্ট হয়।কোবরা,ক্রেইট, সামুদ্রিক সাপের বিষদাত সম্মুখ চোয়ালে থাকে এবং তুলনা মূলক একটু লম্বা (Proteroglyphous) এদের মধ্যে কোবরার চিহ্ন বেশির ভাগ সময় স্পষ্ট ও বুঝা গেলেও ক্রেইটের বাইট মার্ক অনেক সময় চোখে পড়ে না বিষদাঁত সরু সুঁইয়ের মত। এবং লালঘাড় ঢোঁড়া সাপের বিষদাঁত (Rear Fang) পশ্চাৎ চোয়ালে থাকে নিচের দিকে বাঁকানো থাকে খুব বেশি লম্বা নয় (Opisthoglyphous).কাজেই সাপের বিষদাঁত (বিষধর) ও দাঁতের (অবিষধর) গঠন ভিন্ন হওয়াতে সুনির্দিষ্ট করে বলা অনেক সময় কঠিন হয়ে যায় সাপ চিনা না থাকলে বিষধর কি অবিষধর?

★তাই যতদ্রুত সম্ভব সাপে কাটলে হাসাপাতালে যেতে হবে।
★সাপে কাটলে উপসর্গ অাসার অপেক্ষা করবেন না এর অাগেই ডা.এর কাছে পৌঁছাতে হবে।
★কামড়ের চিহ্ন দেখে অবিষধর সাপ মনে করে অবহেলা করবেন না।
★অবিষধর সাপে কাটলে ও ডা. এর শরণাপন্ন হবেন।
★সাপ না চিনে থাকলে সাপের কামড়ে চিহ্নের উপর ভিত্তি করে জীবনের ঝুঁকি নেয়া অনুচিত।
(বি:দ্র: ছবির মত বিষধর ও অবিষধর সাপের দংশনের চিহ্ন সবসময় না ও হতে পারে)

Subscribe
Notify of

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments
error: নিউজ এবং ছবি কপি করা কপিরাইট আইন ২০০০, অনুযায়ী দণ্ডনীয় অপরাধ
0
Would love your thoughts, please comment.x
()
x